রবিবার, ২০ জুন ২০২১ | ৬ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীতে ‘অন্যায়ের প্রতিবাদ’ করায় যুবককে হত্যার হুমকি

শরীফ ইকবাল রাসেল, নরসিংদী
১০ জুন ২০২১ ২৩:৩১ | আপডেট : ১১ জুন ২০২১ ১২:৩৩
Image not found
ঠিকাদার নুরুল ইসলাম চৌধুরী

নরসিংদীর পলাশে রোমান আজাদ নামে এক যুবককে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদার নুরুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুরে এই হুমকি দেওয়া হয় বলে জানান অভিযোগকারী।

রোমান আজাদ জানান, পলাশ উপজেলা সদর হাই স্কুলের পাশেই ছয় শতাংশ জমি ক্রয় করেছেন তিনি। এই জমিতে বাড়ি নির্মাণের লক্ষ্যে মাটি ভরাট করেন। এ সময় তিনি পলাশ হাই স্কুলের মাঠের পানি ও আশপাশের এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য জায়গা বরাদ্ধ সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য পলাশ উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কাছে লিখিত আবেদন করেন। তবে তারা আবেদনের বিষয়ে কর্ণপাত করেননি।

পরবর্তীতে প্রতিবেশী জমির মালিক সজল নামে এক ব্যক্তি পানি নিষ্কাশনের জায়গা ভরাট করেই দেয়াল নির্মাণ শুরু করলে রোমান আজাদ কর্তৃপক্ষকে পুনরায় লিখিতভাবে জানায়। এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়। 

পরবর্তীতে সজল মিয়ার পক্ষে কোনো এক প্রভাবশালী সরকারি কর্মকর্তা পলাশের প্রশাসনকে আয়ত্বে নিয়ে আসায় প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করে এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আমিনুল ইসলাম উপস্থিত থেকে দেয়াল নির্মাণের জন্য সজলকে নির্দেশনা প্রদান করেন বলে জানায় স্থানীয়রা। 

তিনি আরো জানান, সজলের দেয়াল নির্মাণের বিষয়ে প্রশাসনকে অবগত করায় একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে তাঁকে হয়রানি করা হচ্ছে। এছাড়া সজলের মামলার প্রেক্ষিতে এ জমিতে ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন।    

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম গাজীর উপস্থিতিতে রোমান আজাদ ও সজলের মধ্যে সমঝোতার মাধ্যমে পানি নিষ্কাশনের বিষয়ে সভা করলেও সজল সভার সিদ্ধান্তকে মানতে নারাজ। পরবর্তীতে প্রশাসনের নিরবতায় পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না করেই দেয়াল নির্মান করে ফেলে সজল। সম্প্রতি ভারী বর্ষণে আশপাশের পানিতে পলাশ থানা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাট হয়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। ফলে এই বিষয়ে নড়েচরে বসে স্কুল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন। 

রোমান আজাদ আরো জানায়, পানি নিষ্কাশনের বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ শুধু তার ভরাটকৃত জমির উপর দিয়েই নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। আর এই সিদ্ধান্ত মোতাবেক পাইপ দিয়ে পানি নেওয়ার কথা থাকলেও মাটি কেটে একক জমির উপড় দিয়ে পানি ছাড়া হলে জমির মাটি পানিতে ভেসে যায়। এর প্রতিবাদ করায় হত্যার হুমকি দেয় স্থানীয় ঠিকাদার ও পলাশ থানা মডেল হাই স্কুলের পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য নুরুল ইসলাম চৌধুরী।

হত্যার হুমকির ঘটনায় পলাশ থানায় গিয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও অফিসার (তদন্ত) কাউকে না পেয়ে আদালতে মামলা করবেন বলে জানান তিনি।  



মন্তব্য করুন

সর্বশেষ খবর
এই বিভাগের আরও খবর