শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১ | ১ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

উলিপুরে ৭টি মন্দিরে ভাঙচুর, আটক ১৮

নয়ন দাস, কুড়িগ্রাম
১৪ অক্টোবর ২০২১ ২০:৪৯ |আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০২১ ১৩:৫২
হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিমা ও মন্দিরে অগ্নিকান্ড
হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিমা ও মন্দিরে অগ্নিকান্ড

কুড়িগ্রামের উলিপুরে সাতটি মন্দিরে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এর সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ১৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

কুমিল্লার একটি পূজামণ্ডপে পবিত্র কুরআন শরীফ অবমাননার ঘটনায় বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাতে উলিপুর উপজেলার গুনাইগাছ, থেতরাই ইউনিয়নে মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছেন।

নেফরা শ্রী শ্রী দুর্গা মন্দিরের সভাপতি নিপেন রায় বলেন, রাত ১১টার দিকে প্রায় পাঁচ থেকে সাত শত লোক এসে মন্দিরের গ্রিল টিন, প্রতিমা ও পাশের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করে। এরপর খড়ের গাদায় আগুন লাগিয়ে দেয়।

হোকডাঙা ভারতপাড়া সর্বজনীন দুর্গা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক কমলেন্দু রায় জানান, রাত বারোটার দিকে লাঠিসোটা নিয়ে একদল লোক এসে মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করে। এছাড়াও পাশের বাড়িতে হামলা করে তারা।

পশ্চিম কালুডাঙ্গা ব্রাহ্মনপাড়া দুর্গা মন্দিরের পুরোহিত জীবন কৃষ্ণ চন্দ্র চক্রবর্তী বলেন, রাত সাড়ে ১০টার দিকে প্রায় এক হাজার থেকে ১২শ মানুষ এসে মন্দিরে হামলা ও অগ্নিসংযোগ চালায়। তারা প্রতিমাসহ সব কিছু ধ্বংস করে দেয়।

এছাড়াও পশ্চিম কালুডাঙ্গা সর্বজনীন দুর্গা মন্দির, থেতরাই ফাসিদাহ বাজার সার্বজনীন দুর্গামন্দির, হাতিয়া পুরাতন অনন্তপুর বাজার সার্বজনীন দুর্গামন্দির, হাতিয়া ভবেশ নমঃদাস পাড়া দুর্গা সর্বজনীন মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর চালায় তারা। বুধবার রাত থেকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দুই প্লাটুন বিজিবি ও র‍্যাবের টহল জোরদার করা হয়েছে।

এ ঘটনার পর স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম এ মতিন, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য বিপিএম, কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম, রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. ওয়ালিদ হোসেন, পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, উলিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম হোসেন মন্টু, ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ বিষয়ে উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইমতিয়াজ কবির জানান, এখন পর্যন্ত ভিডিও ফুটেজ ও বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে ১৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, কুমিল্লা শহরের নানুয়ার দীঘিরপাড়ের একটি দুর্গাপূজার মণ্ডপে হনুমানের মূর্তিতে পবিত্র কুরআন শরীফ রাখার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এর পর থেকে বিষয়টি নিয়ে সারা দেশে প্রতিবাদের নামে অরাজকতা সৃষ্টির খবর পাওয়া গেছে।



মন্তব্য করুন

সর্বশেষ খবর
এই বিভাগের আর খবর