শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পরকীয়ার অপবাদ মিথ্যা, বললেন অপূর্ব

বিনোদন প্রতিবেদক
৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৮:৪৩ | আপডেট : ৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৪:৫০
অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তার স্ত্রীর নাম শাম্মা দেওয়ান
অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তার স্ত্রীর নাম শাম্মা দেওয়ান

পারিবারিকভাবে বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট) বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। তার স্ত্রীর নাম শাম্মা দেওয়ান। সম্প্রতি তাদের বিয়ে, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, পরকীয়া নিয়ে অনেকেই নেতিবাচক মন্তব্য করছেন। এসব নিয়ে মুখ খুললেন এই অভিনেতা।

বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে গভীর রাতে ভক্ত-শুভানুধ্যায়ীদের উদ্দেশে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন অপূর্ব।

তিনি লিখেছেন, ‘আমার সমস্ত ভক্ত, দর্শক ও শুভানুধ্যায়ীদের আমি আনন্দের সাথে জানাচ্ছি, আমি আমার জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করেছি। শাম্মা দেওয়ান, আমার স্ত্রী, তাঁকে নিয়েই আমার এই যাত্রা।

আমার এই নতুন জীবনের শুরুতে আপনাদের ভালোবাসা আমাকে আপ্লুত করেছে। কিন্তু আমার এবং শাম্মার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে কিছু কিছু অমূলক মন্তব্য আমার নজরে এসেছে যা সম্পূর্ণরূপে অসত্য ও ভিত্তিহীন।

আমার এবং আয়াশের মায়ের আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়ে গেছে ২০১৯ সালে, যদিও তা গণমাধ্যমে পরে প্রকাশিত হয়েছে। খুব স্বাভাবিকভাবে আমরা এই বিষাদময় অধ্যায়ের পর সময় নিয়েছি, ভেবেছি এবং নিজ নিজ পরিবারের সাথে আলাপেও গেছি। আমরা দু’জনই প্রাপ্তবয়স্ক। আমরা একজন আরেকজনের প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখেই আমাদের নিজেদের জীবন পথ বেছে নিয়েছি।

তবে আমি খুবই দুঃখের সাথে লক্ষ্য করেছি, আয়াশের মায়ের নতুন জীবনের সংবাদ প্রকাশের পর অনেকেই তাঁকে অপবাদ দিয়েছেন এই বলে যে, তিনি নাকি পরকীয়া করে বিয়ে করেছেন। আমি এটি নিশ্চিত করে বলতে চাই যে এই ধরনের তথ্য একেবারেই মিথ্যা।

আমাদের সবাইকে আপনারা আপনাদের প্রার্থনা ও শুভকামনায় রাখবেন।

ভালোবাসা রইল।’

আরও পড়ুন - যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীকে বিয়ে করলেন অপূর্ব

এর আগে এদিকে অপূর্বের সাবেক দ্বিতীয় স্ত্রী নাজিয়া হাসান ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘চার বছরের প্রেম সফল হলো। বেস্ট ইয়িশ ফর দা নিউলি ইয়িডেড’। মুহুর্তেই ছড়িয়ে পরে সেই স্ট্যাটাস। নাজিয়া পরে সেই স্ট্যাটাস ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলেন। কিন্তু অনেকেই স্ক্রিনশটের ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেন।

তবে অপূর্ব জানিয়েছিলেন, দুই পরিবারের পছন্দে বিয়ে হয়েছে। প্রায় ছয় মাস আগে থেকেই পারিবারিকভাবে কথাবার্তা চলছিল। পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন শাম্মা। যুক্তরাষ্ট্রেই তাঁর জন্ম ও বেড়ে ওঠা। যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ শেষ করেছেন। এখন সেখানকারই একটি গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের তিনি ব্র্যান্ড ম্যানেজার। বিয়ে উপলক্ষে সপ্তাহখানেক আগে ঢাকায় এসেছেন শাম্মা দেওয়ান।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট পালিয়ে গিয়ে অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। ২০১০ সালের সেই বিয়ে ২০১১ সালে ভেঙে যায়। এরপর ওই বছরই নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। এ সংসারে আয়াশ নামে একটি পুত্রসন্তান রয়েছে তার। ২০২০ সালে নাজিয়ার সঙ্গেও সংসারের ইতি টানেন অপূর্ব।

আরও পড়ুন - তৃতীয়বারের মতো বিয়েকরেছেন ন্যানসি



মন্তব্য করুন