মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০২২ | ২১ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পিএসজি নয়, জিদানের চোখ ফ্রান্সে

স্পোর্টস ডেস্ক
২৩ জুন ২০২২ ১০:৪২ |আপডেট : ২৩ জুন ২০২২ ১৮:২৩
জিনেদিন জিদান।
জিনেদিন জিদান।

গুঞ্জন ছিল পিএসজির কোচ হতে চলেছেন জিনেদিন জিদান। তবে সে গুঞ্জনও হাওয়ায় মিলিয়ে গেছে। কেন মিলিয়ে গেছে, তার একটা আঁচও পাওয়া গেল এবার। ফরাসি এই কোচ জানালেন, ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দলের কোচিং করাতে চান তিনি।

পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর চাকরি যাওয়া, আর জিদানের কোচ হওয়া নিয়ে দারুণ গুঞ্জন ছিল শেষ কিছু দিনে। মৃদু গুঞ্জন ছিল তার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হওয়া নিয়েও। তবে ক্লাবের কোচিংয়ের চেয়ে ফ্রান্সের কোচিংই বেশি টানছে জিদানকে।

আজ ২৩ জুন জিদানের জন্মদিন। সে উপলক্ষ্যে তিনি একটা বিশেষ সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ফরাসি সংবাদ মাধ্যম লে’কিপেকে। সেখানে তিনি বললেন, ‘ল্য ব্লুজ (ফ্রান্স জাতীয় দল) অধ্যায় শেষ হয়ে যায়নি আমার।’ 

সম্প্রতি পিএসজি সভাপতি নাসের আল খেলাইফি মার্কাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জিদানের বিষয়ে কথা বলেছিলেন। সেখানে জানিয়েছিলেন, জিদানের সঙ্গে নাকি কথাই হয়নি তাদের। বলেছিলেন, ‘জিদানের বিষয়ে আমি গুরুত্বপূর্ণ কিছু বলতে চাই। সে এমন একজন যাকে আমি খেলোয়াড় ও কোচ হিসেবে ভালোবাসি। কিন্তু তার সঙ্গে আমাদের কখনো কথাই হয়নি, সেটা সরাসরি হোক, কিংবা পরোক্ষভাবে। তাকে সম্মান করি, আমি তার গুণমুগ্ধও। অনেক কিছু সংবাদ মাধ্যমে রটেছে, তবে তার সঙ্গে আমাদের কখনো কথাই হয়নি।’

তবে জিদানের ফ্রান্সের কোচ হওয়ার পথটা সহজ নয়। দলটির কোচ এখন দিদিয়ের দেশম, যার হাত ধরে ২০১৮ সালে বিশ্বকাপ জিতেছে ফ্রান্স, গেল বছর জিতেছে নেশন্স লিগ। এমন সাফল্যের পর ফ্রান্সের কোচিং ছাড়বেন কখন সেটা বর্তমান কোচের হাতে চলে গেছে।

১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্সের অধিনায়ক দেশম ২০১২ সালে দলটির কোচিং শুরু করান। এরপর দুটো বিশ্বকাপে দলকে কোচিং করিয়েছেন, কাতার বিশ্বকাপে ডাগআউটে দাঁড়াবেন তৃতীয়বারের মতো। সব মিলিয়ে পঞ্চম মেজর টুর্নামেন্টে কোচিং করিয়ে এবার তিনি দায়িত্ব ছাড়বেন, এমন গুঞ্জন ফরাসি সংবাদ মাধ্যমে।

সেটা হলে জিদানের পথটা ফাঁকা হয়ে যাবে। সাবেক ফরাসি অধিনায়ক এই দায়িত্বের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুতও। ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি নোয়েল ল গ্রায়েতও আভাস দিয়েছেন তেমন কিছুরই। গেল বছর তিনি বলেছিলেন, ‘সে এমন একজন যাকে আমি পছন্দ করি। জিদান কোনো একদিন ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দলের কোচ হবে। কখন? সেটা আমি জানি না।’



মন্তব্য করুন