শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সহজ উপায়ে যেভাবে কমাবেন ভুড়ি

অনলাইন ডেস্ক
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৮:১৭ |আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১০:৫০
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

ভুঁড়ি বেড়ে গেলে তা নিয়ে বিব্রত হতে হয় অনেককেই। এটি যে শুধু শারীরিক সৌন্দর্য নষ্ট করে তাই নয়, সেইসঙ্গে নানা অসুখ-বিসুখকেও ডেকে নিয়ে আসে। পেটে চর্বি জমলে তা ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপের জন্ম দেয়। ভুঁড়ি কমানোর জন্য আপনাকে সবার আগে পরিবর্তন আনতে হবে খাদ্যাভ্যাসে। মিষ্টি ও মিষ্টিজাতীয় খাবার, উচ্চ শর্করাযুক্ত খাবার কম খেতে হবে। সেইসঙ্গে বাড়াতে হবে শাক-সবজি খাওয়ার পরিমাণ বাড়াতে হবে।

পরিশ্রম করা ছাড়া আপনার ভুঁড়ি কমানো সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করবে কিছু ব্যায়াম। সেজন্য জিমে যাওয়ারও প্রয়োজন হবে না। ঘরে বসেই কয়েকটি সহজ পদ্ধতিতে কমাতে পারবেন ভুঁড়ি। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক ভুঁড়ি কমানোর সহজ কিছু উপায়-

ব্রিস্ক ওয়াকিং

এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে ভুঁড়ি কমানো সহজ হবে। ব্রিস্ক ওয়াকিংয়ে প্রথমে ধীরে ধীরে এক মিনিট হাঁটুন। এরপর গতি বাড়িয়ে হাঁটুন আরও তিরিশ সেকেন্ড। এবার আবার এক মিনিট হাঁটুন ধীরে ধীরে। তারপর গতি বাড়িয়ে ৩০ সেকেন্ড হাঁটুন। এভাবে ১০ মিনিট করুন। প্রতিদিন এভাবে করলে ভুঁড়ির সমস্যা কমে আসবে দ্রুতই।

জগিং

ভুঁড়ি কমানো সম্ভব জগিং করেও। প্রথমে এক মিনিট জগিং করুন। তারপর ৩০ সেকেন্ড দৌড়ান। তারপর আবার এক মিনিট জগিং করুন। আবার ৩০ সেকেন্ড দৌড়ান। এইভাবে করুন ৫ থেকে ১০ মিনিট। প্রতিদিন এভাবে জগিং করলে ভুঁড়ি কমে আসবে।

৯০ ডিগ্রি পা

একটি ম্যাটের ওপর চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। তারপর হাতের তালু ম্যাটের ওপর রাখুন। এ বার পা জোড়া করে ৯০ ডিগ্রির ওপরে উঠিয়ে দিন। ১০ সেকেন্ড ধরে রাখুন। পা নামানোর সময় হাঁটু ভাঁজ করবেন না যেন। পা সোজা রাখুন। এভাবে ১০-২০ বার করুন। এতে ভুঁড়ি কমানো ছাড়াও আরও অনেক উপকার পাবেন।

পেটের স্ট্রেচিং

প্রথমে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। দুই হাত সোজা করে টানটান করে মাথার পেছনে নিয়ে যান। একইসঙ্গে পায়ের পাতা টানটান করে মেঝে ছুঁতে চেষ্টা করুন। পেটের পেশিতে টান অনুভব করবেন এতে। এভাবে ৫ থেকে ১০ মিনিট থাকবেন। শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক থাকবে।

ক্রাঞ্চ

এই ব্যায়াম ভুঁড়ি কমানোর জন্য বেশ কার্যকরী। ব্যায়ামটি করার জন্য প্রথমে ম্যাটে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। এরপর হাঁটু ভাঁজ করে বুকের কাছে আনতে চেষ্টা করুন। মাথার পেছনে হাত রেখে, শরীরটাকে উঠিয়ে হাঁটুর কাছাকাছি নিয়ে আসার চেষ্টা করুন। এই ব্যায়াম করার ক্ষেত্রে, হাঁটু ও মাথা একসঙ্গে আনার সময় শ্বাস নেবেন। আগের অবস্থানে ফিরে যাওয়ার সময় শ্বাস ছাড়বেন। এভাবে ব্যায়াম করলে দ্রুতই সুফল পাবেন।



মন্তব্য করুন