সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪ | ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দীর্ঘদিন বাঘ শূন্য রংপুর চিড়িয়াখানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৬:০০ |আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৬:২১
বাঘ শূন্য খাঁচা- রংপুর চিড়িয়াখানা
বাঘ শূন্য খাঁচা- রংপুর চিড়িয়াখানা

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম চিড়িয়াখানা রংপুর চিড়িয়াখানা। অন্যভাবে বলা যায় রংপুর বিভাগের ৮টি জেলার মধ্যে এটি একমাত্র সরকারি চিড়িয়াখানা। প্রায় ২২ একর জায়গার উপর প্রতিষ্ঠিত এই চিড়িয়াখানার অন্যতম আকর্ষণ ছিল বাঘ তথা রয়েল বেঙ্গল টাইগার। কিন্তু প্রায় ১৯ মাস আগে চিড়িয়াখানার সর্বশেষ বাঘিনীর অসুস্থজনিত কারণে মারা যায়। সেই থেকে আজ অবধি নতুন কোনো বাঘের সংযুক্তি হয়নি এই চিড়িয়াখানায়।

এ প্রসঙ্গে কথা হয় দর্শনার্থী ইঞ্জিঃ আবুল কালাম আজাদের সাথে। তিনি বলেন সপরিবারে অনেক দিন পর চিড়িয়াখানায় আসার পর বাঘ শূন্য খাঁচা দেখে তার ৬ বছরের শিশু সন্তান বেশ ব্যতীত। তিনি মনে করেন, রাষ্ট্রীয় এত বড় একটি চিড়িয়াখানায় জাতীয় পশু তথা রয়েল বেঙ্গর টাইগারের অনুপস্থিতি সত্যি খুব দুঃখজনক। তিনি অতি সত্ত্বর রংপুর চিড়িয়াখানায় বাঘের সংযুক্তির দাবি করেন।

হনুমান তলা থেকে আগত ছোট দুটি শিশু আব্দুর রহমান এবং আব্দুর রহিম প্রায়শই তাদের মামার সাথে চিড়িয়াখানায় আসে। তাদের মামা বাপ্পি জানান তার ভাগিনারা প্রতিবারেই আশা করে আসে যে, বাঘ দেখতে পারবে। কিন্তু তাদের সেই আসা যেন পূরণ হবার নয়।

দীর্ঘদিন কুয়েত প্রবাসী দর্শনার্থী হারুন জানান, কর্মসূত্রে বেশ কয়েকটি দেশে তাঁর ভ্রমণের সুযোগ হয়েছিল। তাই বাঘবিহীন চিড়িয়াখানা তিনি কল্পনা করতে পারেন না। তার মতে এটি অনেকটা হাস্যকর বটে। তাই তাঁর দাবি রাষ্ট্রীয় এই চিড়িয়াখানায় দর্শনার্থীদের আকর্ষণ ধরে রাখার জন্য অতিসত্বর জাতীয় পশু সংযুক্তি দরকার।

তিনি আরও বলেন, এই চিড়িয়াখানায় বেশ কয়েটি দেশের জাতীয় পশু প্রদর্শিত হলেও নিজ দেশের নিজ চিড়িয়াখানায় জাতীয় পশুর অনুপস্থিতি শিশুদের জ্ঞান বিকাশের ক্ষেত্রে একটি অন্তরায় বটে।

রংপুর চিড়িয়াখানার জু অফিসার ডা.এইচ.এম শাহাদৎ জানান, রংপুর চিড়িয়াখানার বাঘ সংযুক্তির বিষয়ে কর্তৃপক্ষ খুবই আন্তরিক এবং খুব শীঘ্রই এই চিড়িয়াখানায় দুইটি রয়েল বেঙ্গল টাইগার সংযুক্ত হতে যাচ্ছে।



মন্তব্য করুন