রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ | ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন আরো ২ জন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
৬ জুন ২০২৪ ২২:১৩ |আপডেট : ১২ জুন ২০২৪ ২০:১১
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে পাওয়া ১০ লাখ টাকার চেক ক্রেতা মাহমুদুল হাসান ও ইউনুস আলীর হাতে তুলে দেয়া হয়।
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে পাওয়া ১০ লাখ টাকার চেক ক্রেতা মাহমুদুল হাসান ও ইউনুস আলীর হাতে তুলে দেয়া হয়।

দেশের সুপারব্র্যান্ড ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হয়েছেন আরো দুই ক্রেতা। তারা হলেন জামালপুর সদরের মাহমুদুল হাসান এবং কুড়িগ্রাম ভুরুঙ্গামারীর ইউনুস আলী। ঈদ উপলক্ষে দেশব্যাপী চলমান ওয়ালটনের ‘ননস্টপ মিলিয়নিয়ার’ ক্যাম্পেইনের আওতায় এই সুবিধা পান তাঁরা। ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে মাধ্যমে এখন পর্যন্ত মিলিয়নিয়ার হলেন ৪০ জন ক্রেতা।

বুধবার (৫ জুন, ২০২৪) ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা রাম-কিশোর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ওয়ালটন ফ্রিজের ক্রেতা মাহমুদুল হাসানের হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান এবং চিত্রনায়ক রিয়াজ। 

এর আগে গত ৩১ মে বগুড়ার মম ইন হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রেতা ইউনুস আলীর হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন চিত্রনায়ক আমিন খান।

ঈদ উৎসবকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-২০ এ ক্রেতাদের ননস্টপ মিলিয়নিয়ার হওয়ার সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন। সিজন-২০ চলাকালীন দেশের যেকোনো ওয়ালটন প্লাজা, পরিবেশক শোরুম ও অনলাইন সেলস প্ল্যাটফর্ম ই-প্লাজা থেকে ফ্রিজ, এসি, টিভি, ওয়াশিং মেশিন বা ফ্যান কিনে আবারো মিলিয়নিয়ার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রেতারা। এছাড়াও রয়েছে কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত উপহার।

এই ক্যাম্পেইনের আওতায় গত ১৯ মে মুক্তাগাছা ওয়ালটন প্লাজা থেকে ৯ হাজার টাকা ডাউনপেমেন্ট দিয়ে ১৬৩ লিটারের একটি ফ্রিজ কেনেন মাহমুদুল হাসান। ফ্রিজটি তার বোনকে উপহার দেন। ফ্রিজটি কেনার পর তার নাম, মোবাইল নাম্বার এবং ক্রয়কৃত ফ্রিজের মডেল নাম্বার ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন করা হয়। কিছুক্ষণ পরই তার মোবাইলে ওয়ালটনের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক পাওয়ার একটি ম্যাসেজ যায়। এর আগে গত ১০ মে কুড়িগ্রাম ভুরুঙ্গামারীতে ওয়ালটনের ডিস্ট্রিবিউটর শোরুম দি ইস্টি ইলেকট্রনিক্স থেকে একটি ফ্রিজ কিনে একই পদ্ধতিতে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন করলে ১০ লাখ টাকা ক্যাশব্যাক পান ইউনুস আলী।

চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ক্রেতা মাহমুদুল হাসান বলেন, ওয়ালটন পণ্য দামে সাশ্রয়ী, টেকসইও। তাছাড়া তাদের কিস্তি সুবিধা রয়েছে। তাই কিস্তি সুবিধায় ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনেছি। কিন্তু ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে এমন পুরস্কার পাবো তা ভাবতেও পারিনি। ক্রেতাকে দেয়া কথা রাখায় ওয়ালটন কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই।

এদিকে একটি ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পাওয়ায় মহাখুশি কুড়িগ্রামের ইউনুস। তিনি জানান, জীবনে এই প্রথম পণ্য কিনে কোনো পুরস্কার পেলাম। তাও আবার ১০ লাখ টাকা। ওয়ালটনকে ধন্যবাদ। ওয়ালটন থেকে পাওয়া টাকা ব্যবসার কাজে লাগাবো।

চিত্রনায়ক আমিন খান বলেন, বিশ্বমানের ইলেকট্রনিক্স পণ্য গ্রাহকদের দ্বোরগোঁড়ায় পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করছে ওয়ালটন। প্রতিষ্ঠানটি শুধুমাত্র ব্যবসাই করছে না তারা মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নেও ব্যাপক ভূমিকা রাখছে।

চিত্রনায়ক রিয়াজ বলেন, ওয়ালটন সবসময় গ্রাহকদের সুবিধার দিকটি অগ্রাধিকার দেয়। এভাবেই তারা গ্রাহকের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে। আমাদের সবার উচিৎ দেশি ব্র্যান্ড ওয়ালটনের পণ্য কিনে দেশের অর্থনীতিকে আরো শক্তিশালী করা। এতে লাভ আমাদের দেশের মানুষেরই।

মুক্তাগাছার ১০ লাখ টাকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন প্লাজার চিফ সেলস এক্সিকিউটিভ আরিফুল ইসলাম, চিফ ডিভিশনাল অফিসার অজিত কুমার দাস, ডিভিশনাল ক্রেডিট ম্যানেজার মনোয়ার হোসেন ও রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার জামিল হোসেন প্রমুখ।

কুড়িগ্রামের ইউনুস আলীর হাতে ১০ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক আমিন খানসহ আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহীদুল ইসলাম রেজা, ব্র্যান্ড ম্যানেজার মুস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।



মন্তব্য করুন