সোমবার, ২১ জুন ২০২১ | ৭ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দেশে ফিরলেন লিবিয়ায় আটকে পড়া ১৬০ বাংলাদেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক
৫ মে ২০২১ ১২:০২ | আপডেট : ৫ মে ২০২১ ১৮:০৪
Image not found
দেশে ফেরার আগে লিবিয়ার মাটিতে আটকে পড়া বাংলাদেশীরা।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস এবং লিবিয়ায় দীর্ঘদিনের অস্থিতিশীলতার কারণে দেশটিতে আটকে পড়া ১৬০ জন বাংলাদেশি নাগরিককে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) সহযোগিতায় দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

আজ বুধবার (৫ মে) সকালে বুরাক এয়ারের একটি ফ্লাইটে করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তারা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (৪ মে) ১৬০ বাংলাদেশিকে নিয়ে লিবিয়ার বেনগাজি বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয় আইওএম এর চার্টার্ড করা বুরাক এয়ারের একটি ফ্লাইট। ফ্লাইটটি আজ বুধবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। একই ফ্লাইটে লিবিয়ায় মৃত্যুবরণকারী একজন বাংলাদেশি নাগরিকের মৃতদেহও দেশে ফেরত আনা হয়েছে।

এদিকে দেশে পৌঁছানোর পর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বিমানবন্দরে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হয়েছে। তারা সবাই নিজেদের ইচ্ছায় দেশে ফিরে এসেছেন। আগতদের মধ্যে নয় জন অসুস্থ এবং সাতজন হেপাটাইটিস বি ভাইরাসে আক্রান্ত। তারা লিবিয়ার সফর জেলে আটক অবস্থায় ছিলেন।

এছাড়া ফিরে আসা অভিবাসীদের একটি বড় অংশ দীর্ঘ ৭-৮ বছর ধরে লিবিয়ায় কর্মরত ছিলেন। কেউ কেউ ১০-১২ বছর ধরেও দেশটিতে অবস্থান করছিলেন। তবে লিবিয়ার বর্তমান পরিস্থিতি, পর্যাপ্ত কাজের সুযোগ-সুবিধা এবং লিবীয় মুদ্রার অবমূল্যায়নসহ নানান নেতিবাচক পরিস্থিতি বিবেচনায় তারা অনেক আগ থেকেই দেশে ফিরে আসার প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন। কিন্তু লিবিয়া থেকে কোনো আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল করতো না। ফলে তাদের পক্ষে দেশে ফেরা সম্ভব ছিলো না।

এমতাবস্থায় বাংলাদেশ সরকার ও আইওএম এর সহায়তায় লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের পর্যায়ক্রমে দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। এর আগে লিবিয়া থেকে পর্যায়ক্রমে আটটি ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়েছে। আজকের ফ্লাইট ছিলো নবম ফ্লাইট। এসব ফ্লাইটে এখন পর্যন্ত মোট ১৩৭৯ জন অভিবাসীকে লিবিয়া থেকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।



মন্তব্য করুন